Hajj Registration

 হজে যাওয়ার জন্য প্রথম ধাপ প্রাক্-নিবন্ধন:

সৌদি ‘ই হজ সিস্টেমের’ সঙ্গে সমন্বয়ের জন্য হজযাত্রীদের জন্য প্রাক্-নিবন্ধন পদ্ধতি চালু করা হয়েছে । নিজে অথবা ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অনুমোদিত বৈধ হজ এজেন্সির মাধ্যমে প্রাক-নিবন্ধনের প্রথম ধাপ সম্পন্ন করে পেমেন্ট ভাউচারসহ ব্যাংকে টাকা জমা দিন এবং আপনার  প্রাক্-নিবন্ধন সনদ সংগ্রহ করুন । প্রতি বছরে সৌদি সরকারের সাথে চুক্তি মোতাবেক নির্ধারিত কোটা অনুযায়ী জাতীয় হজ ও ওমরাহ নীতির ধারার ভিত্তিতে হজযাত্রীদের নিবন্ধন সম্পন্ন হবে । প্রাক্-নিবন্ধন সংক্রান্ত কোন তথ্য জানার প্রয়োজন হলে 01787656565 নম্বরে টেলিফোনে যোগাযোগ করতে পারবেন ।

প্রাক্-নিবন্ধন করতে যা লাগবে:
  • জাতীয় পরিচয়পত্র, (১৮ বছরের নিচে বয়স যাদের, জাতীয় পরিচয়পত্র নেই সেক্ষেত্রে অভিভাবকের সঙ্গে  জন্ম  নিবন্ধন সনদ দিয়ে প্রাক নিবন্ধন করতে পারবেন) ।
  • মোবাইল নম্বর (যেখানে এসএমএস পাবেন)
  • সরকারি ব্যবস্থাপনার জন্য ৩০,০০০(ত্রিশ হাজার টাকা), বেসরকারি ব্যবস্থাপনার জন্য ৩০,৭৫২ (ত্রিশ হাজার সাতশত বায়ান্ন) টাকা জমা দিতে হবে ।
যেখানে প্রাক্-নিবন্ধন করা যাবে:
  • ইউনিয়ন তথ্য সেবা কেন্দ্রে
  • জেলা প্রশাসকের কার্যালয়
  • ইসলামিক ফাউন্ডেশনের কার্যালয়
  • ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অনুমোদিত বৈধ হজ এজেন্সি
  • পরিচালক, হজ অফিস, আশকোনা, ঢাকা
এর যেকোনো এক জায়গা থেকে  হজযাত্রী নিজে অথবা তার প্রতিনিধি প্রাক্-নিবন্ধন করতে পারবেন ।

ধাপে ধাপে প্রাক্-নিবন্ধন:

প্রাক্-নিবন্ধনের প্রথম ধাপে জাতীয় পরিচয়পত্র তথ্য ভান্ডার থেকে (নাম, পিতার নাম, মাতার নাম,  পেশা, জন্মতারিখ, স্থায়ী ঠিকানা, নারী/পুরুষ, বৈবাহিক অবস্থা) তথ্য স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে যাচাই হবে । হজযাত্রী সরকারি নাকি বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজে যেতে ইচ্ছুক সে সংক্রান্ত  তথ্য । ব্যাংকে টাকা জমা দেওয়ার জন্য ট্র্যাকিং নম্বরসংবলিত প্রিন্ট করা পেমেন্ট ভাইচারসহ সরকার নির্ধারিত ব্যাংকে (তালিকা পরে জানানো হবে) সরকারি ব্যবস্থাপনার জন্য ৩০,০০০ (ত্রিশ হাজার টাকা),  বেসরকারি ব্যবস্থাপনার জন্য ৩০,৭৫২ (ত্রিশ হাজার সাতশত বায়ান্ন) টাকা জমা দিতে হবে ।

(উল্লেখ্য নির্ধারিত সময়ের মধ্যে টাকা জমা না দিলে পুনরায় প্রাক-নিবন্ধন করতে হবে।)

ব্যাংক টাকা পরিশোধের পর ব্যাংক থেকে হজের প্রাক্-নিবন্ধন সনদ দেওয়া হবে। (প্রাক নিবন্ধন সনদে জাতীয় পরিচয়পত্র তথ্য, প্রাক্-নিবন্ধন নম্বর, পাসপোর্টের তথ্য, ব্যাংকে টাকা জমা দেওয়া বিবরণ থাকবে) একই সঙ্গে হজযাত্রীর মোবাইল নম্বরে এসএমএস প্রেরণ করে প্রাক নিবন্ধন নিশ্চিত করা হবে । জাতীয় হজ নীতির আলোকে প্রাক্-নিবন্ধন নম্বর চলতি বছর হজে যাওয়ার জন্য নির্বাচিত হলে হজযাত্রীর মোবাইলে এসএমএস দেওয়া হবে ।

হজে যাওয়ার জন্য নির্বাচিত হলে হজযাত্রীর মোবাইলে এসএমএস পাওয়ার পর (নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু হবে)।  নির্ধারিত সময়ের মধ্যে হজ অফিস/ সংশ্লিষ্ট এজেন্সি প্রাক-নিবন্ধন তথ্য ভান্ডার থেকে হজ যাত্রীদের আবেদন অনলাইনে গ্রহণ করে প্যাকেজের সম্পূর্ণ টাকা পরিশোধ পরিশোধিত মর্মে হজ অফিস/ সংশ্লিষ্ট  হজ এজেন্সি নিশ্চিত করলে পিলগ্রিম আইডি (PID) তৈরি হবে। সম্পূর্ন টাকা পরিশোধ করলে হজযাত্রীর মোবাইল নম্বরে এসএমএস প্রেরণ করে PID নিশ্চিত করা হবে। হজে যাওয়ার জন্য পিলগ্রিম আইডি অত্যাবশক ।

হজযাত্রীকে প্রদত্ত প্রাক পরিবর্তনযোগ্য প্রাক- নিবন্ধন নম্বর (serial) কোনভাবেই পরিবর্তনযোগ্য নয়। তাই হজে যাওয়ার প্রথম ধাপ  প্রাক্-নিবন্ধন করুন । প্রাক্-নিবন্ধনে প্রাপ্ত তথ্যাদি পুলিশের বিশেষ শাখার মাধ্যমে যাচাই করা হবে ।

প্রাক্-নিবন্ধন বাতিল করতে চাইলে :

প্রাক্-নিবন্ধন করে যদি হজে গমন না করেন তাহলে হজযাত্রীর অগ্রীম জমাকৃত জামানত থেকে সার্ভিস চার্জ ২ হাজার এবং প্রসেসিং ফি বাবদ ৩ হাজার  মোট ৫ হাজার টাকা বাদ দিয়ে বাকি টাকা ফেরত পাবেন ।
১৮ বছরের নিচে বয়স যাদের :

১৮ বছরের নিচে বয়স যাদের, জাতীয় পরিচয়পত্র নাই সেক্ষেত্রে অভিভাবকের সঙ্গে জন্ম নিবন্ধন সনদ দিয়ে প্রাক্-নিবন্ধন করতে পারবেন। ও পুলিশের বিশেষ শাখার মাধ্যমে যাচাই করা হবে ।

HAJJ Registration 2019-2020

Umrah Packages Sep-Oct-Nov 2018